|

এ কেমন শত্রুতা! গৌরীপুরে লাশ দাফনে বাধা

প্রকাশিতঃ ৩:১৪ অপরাহ্ন | মে ০৫, ২০২০

এ কেমন শত্রুতা! গৌরীপুরে লাশ দাফনে বাধা

স্টাফ রির্পোটারঃ শ্বাসকষ্টে বৃদ্ধ বাবা আবদুল হাইয়ের (৬৫) মৃত্যু হয়েছে। করোনাভাইরাস সন্দেহে মরদেহ দাফনে বাধা দেয়া এলাকাবাসী। তবে আড়ালের ঘটনা ভিন্ন, প্রতিবেশিদের সাথে জমিসংক্রান্ত বিরোধের জেরেই মূলত হয়রানী করতে করোনায় আক্রান্তের গুজব ছড়ানো হয়। তাই লাশ দাফনে বাঁধা দিতে প্রতিবেশিদের সাথে যোগদেয় কথিপয় এলাকাবাসী।

এ অবস্থায় বাবার মরদেহ ভ্যানে নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরেছেন ছেলে শাহজাহান মিয়া (২৮)। সোমবার দিবাগত রাতে এমন দৃশ্য দেখা গেল ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার ২নং ইউনিয়নের সাতুতী গ্রামে।

জানা যায়, গার্মেন্টকর্মী শাহজাহান মিয়া ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার স্বয়ার মাস্টারবাড়ি এলাকায় বাবা আবদুল হাইকে সঙ্গে নিয়ে থাকতেন। দীর্ঘদিন ধরে তার বাবার শ্বাসকষ্ট।

সোমবার সকালে বাবাকে নিয়ে তিনি গৌরীপুর উপজেলার সাতুতী গ্রামে নিজ বাড়িতে ফেরেন। এ সময় আবদুল হাইয়ের শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে চিকিৎসার জন্য বাবাকে নিয়ে যান ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে বাড়ি ফেরার পথে রাত ৯টার দিকে মারা যান তিনি।

অ্যাম্বুলেন্সে বাবার মরদেহ নিয়ে বাড়িতে ফিরলে দাফনে বাধা দেন আবদুল হাইয়ের ভাইয়ের ছেলে ও স্বজনরা। জমিসংক্রান্ত বিরোধ থাকার কারণে বাবার মরদেহ বাড়িতে নামাতে দেয়নি বলে অভিযোগ করেন শাহজাহান মিয়া।

ছেলে শাহজাহান মিয়ার অভিযোগ, বাবার মরদেহ নামাতে চাইলে তার চাচাতো ভাই রিপন, সাইফুল ইসলাম, রবিউল ইসলাম, ফারুক মিয়া, রফিক মিয়া গং তাকেও মারপিট করেছেন।

মৃত আবদুল হাইয়ের স্ত্রী ফিরুজা খাতুন জানান, ওরা আমার ছেলেকে মেরেছে। এ সময় তিনি বলেন ‘আমরা নাকি তাকে (আবদুল হাই) মেরে ফেলেছি। এই কথা বলে আমাদের ওপর হামলা করেছে। এর পর শাহজাহান বাবার মরদেহ নিয়ে চলে যান তাঁতকুড়া এলাকায়।

সেখানে একটি ভ্যানে বাবার মরদেহ নিয়ে দাফনের চেষ্টা করেন কোনাপাড়ায় এক আত্মীয়ের বাড়িতে। সেখানেও দাফনে জটিলতা সৃষ্টি হয়। করোনাভাইরাসে মারা গেছে এমন গুঞ্জনও ছড়িয়ে যায়। ফলে সেখানেও দাফনে বাঁধা আসে।

ভ্যানে বাবার মরদেহ নিয়ে সেখান থেকেও চলে আসতে হয়। খবর পেয়ে রাত প্রায় ৩টায় ঘটনাস্থলে ছুটে যান গৌরীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেঁজুতি ধর।

গৌরীপুর থানার ওসি মো. বোরহান উদ্দিন জানান, নিহত ব্যাক্তির সাথে প্রতিবেশিদের পারিবারিক ও জমিসংক্রান্ত বিরোধ রয়েছে। সে কারণে দাফন নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছিল। পৌর কাউন্সিলর আতাউর রহমান আতার উপস্থিতিতে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়েছে। ফজরের নামাজের পর মঙ্গলবার ভোরে দাফনকাজ সম্পন্ন হয়। গৌরীপুর পৌরসভার পশ্চিম দাপুনিয়ার গোরস্তানে অবশেষে লাশ দাফন হয়েছে।

এসো গৌরীপুর গড়ি সমন্বয়কারী আবু কাউছার চৌধুরী রন্টি জানান, সংগঠনের পক্ষ থেকে দাফনের কাপড় ও অন্যান্য সরঞ্জাম দেওয়া হয়েছে।

দেখা হয়েছে: 2011
ফেইসবুকে আমরা

সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
মোবাইলঃ ০১৭৩৩-০২৮৯০০
প্রকাশকঃ উবায়দুল্লাহ রুমি
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৭৮৫৫৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অস্থায়ী কার্যালয়ঃ ১নং সি. কে ঘোষ রোড, ৩য় তলা, ময়মনসিংহ।
(৭১ টিভির আঞ্চলিক কার্যালয়)।

The use of this website without permission is illegal. The authorities are not responsible if any news published in this newspaper is defamatory of any person or organization. Author of all the writings and liabilities of the author