|

জেলা পরিষদ নির্বাচনে গৌরীপুরে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস

প্রকাশিতঃ ১১:১১ অপরাহ্ন | অক্টোবর ১৫, ২০২২

আরিফ আহম্মেদ, গৌরীপুর।
ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণার শেষ হয়েছে শনিবার মধ্যরাতে। ভোটগ্রহণ আগামীকাল সোমবার (১৭ অক্টোবর)। শেষ পর্যায়ে প্রার্থীরা কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ভোটারদের কাছে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছেন। ভোটে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের প্রত্যাশা করছেন তাঁরা।

জানা গেছে, এবার ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে চার জন, ১৩টি সাধারণ আসনে ৪৮ জন সদস্য ও ৫টি সংরক্ষিত আসনে ১৯ জন নারী প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। জেলার একটি সিটি করপোরেশন, দশটি পৌরসভা ও ৩৫১টি ইউনিয়নে মোট ভোটার রয়েছেন ২ হাজার ৮৯ জন। এর মধ্যে নারী ভোটার ৪৯১ জন।

চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন- আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সদস্য নূরুল ইসলাম রানা (স্বতন্ত্র), মহানগর জাসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ও ন্যাশনাল পিপসল পার্টি (এনপিপি) হামিদুল ইসলাম।

জেলা পরিষদ নির্বাচনে ৫ নং ওয়ার্ড গৌরীপুর। উপজেলা পরিষদ, পৌরসভা ও ১০টি ইউনিয়নের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা ভোটের মাধ্যমে জেলা পরিষদ সদস্য নির্বাচিত করবেন। সাধারণ সদস্য পদে এবার মোট চারজন প্রার্থী গৌরীপুর থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাঁরা হলেন- আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের জাতীয় পরিষদ সদস্য গোলাম সামদানী খান সুমন (হাতি), সাবেক পৌর কাউন্সিলর আব্দুল কাদির (তালা), ইঞ্জিনিয়ার জুলফিকার আলী (টিউবওয়েল) ও সাবেক ছাত্র নেতা মোঃ সম্রাট হোসেন শাওন (ঘুড়ি)।

শনিবার চার প্রার্থী নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট প্রার্থনা করেছেন ভোটারদের কাছে। ভোটের আশায় তাদের কর্মী সমর্থকরাও ছুটে চলেছেন ভোটারদের বাড়ি বাড়ি। প্রচার-প্রচারণায় এই চার প্রার্থী সমান অবস্থানে না থাকলেও জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন সবাই।

মোহাম্মদ গোলাম সামদানী খান সুমন বলেন, নির্বাচনে ভোটাররাই বড় শক্তি। আমি ভোটারদের কাছ থেকে বেশ সাড়া পেয়েছি। ভোটাররা আমার সাথে আছে। বিজয়ী হব ইনশাল্লাহ।

আব্দুল কাদির বলেন, নির্বাচনের প্রচারণায় যেখানেই যাচ্ছি, ভোটারদের ভালো সমর্থন পাচ্ছি। জয়ের বিষয়ে আমি শতভাগ আশাবাদী।

ইঞ্জিনিয়ার জুলফিকার আলী বলেন, প্রতিটা ইউনিয়নে নির্বাচনী প্রচারণা ও গণসংযোগ করেছি। নির্বাচনী পরিবেশ ভালো আছে। ভোটের মাঠে আমার অবস্থান ভালো। জয়ের বিষয়ে আমি আশাবাদী।

মোঃ সম্রাট হোসেন শাওন বলেন, ভোটের প্রচারণায় আমি সব ইউনিয়নে গণসংযোগ করেছি। ভোটারদের কাছে ভোট ও দোআ প্রার্থনা করেছি। জয়ের বিষয়ে আমি আশাবাদী।

এছাড়াও ময়মনসিংহ সদর, গৌরীপুর ও তারাকান্দা উপজেলা নিয়ে গঠিত সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিন নারী প্রার্থী। তারা হলেন আরজুনা কবীর (দেয়াল ঘড়ি), নাজমুন নাহার মুক্তা (ফুটবল) ও ফারহানা আক্তার (দোয়াত কলম)।

মাওহা ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মোঃ মাসুদ রানা বলেন- সব প্রার্থীরাই নানা প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন, তবে সৎ ও যোগ্য প্রার্থীকেই ভোট দেব।

বোকাইনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আল মুক্তাদির শাহীন বলেন- গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়নে জেলা পরিষদ গুরুত্বপূর্ণ সহযোগী। কর্মঠ ও সৎ প্রার্থীকেই ভোট দিবেন তিনি।

গৌরীপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সজল চন্দ্র সরকার জানান- এবার জেলা পরিষদ নির্বাচনে ইভিএমের মাধ্যমে সকাল ৯ টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। গৌরীপুরে মোট ভোটার ১৪৬ জন। পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ভোট গ্রহণ করা হবে।

দেখা হয়েছে: 144
ফেইসবুকে আমরা

সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
মোবাইলঃ ০১৭৩৩-০২৮৯০০
প্রকাশকঃ উবায়দুল্লাহ রুমি
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৭৮৫৫৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অস্থায়ী কার্যালয়ঃ ১নং সি. কে ঘোষ রোড, ৩য় তলা, ময়মনসিংহ।
(৭১ টিভির আঞ্চলিক কার্যালয়)।

The use of this website without permission is illegal. The authorities are not responsible if any news published in this newspaper is defamatory of any person or organization. Author of all the writings and liabilities of the author